1. masudkhan89@yahoo.com : admin :
  2. masudkhan89@gmail.com : Masud Khan : Masud Khan
  3. news.chardike24@gmail.com : চারদিকে ২৪.কম : রাইসা আক্তার
শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০২:০৯ অপরাহ্ন

ইউক্রেনে যুদ্ধের দামামা, ৮৫০০ মার্কিন সেনা সতর্ক অবস্থায়

  • আপডেট সময়: মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী, ২০২২
  • ২৪ দেখেছেন
ইউক্রেন নিয়ে চরম উত্তেজনায় রাশিয়া এবং আমেরিক ও তার মিত্র দেশগুলো

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক:  যেকোন সময় ইউক্রেনকে কেন্দ্র করে যুদ্ধ লেগে যেতে পারে। ওই অঞ্চলে যুদ্ধের দামামা বাজা শুরু হয়ে গেছে। হামলা হলে দেশকে সুরক্ষা দেয়ার জন্য স্বেচ্ছাসেবীদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে ইউক্রেন। যুক্তরাষ্ট্র প্রস্তুত রেখেছে প্রায় ৮৫০০ সেনা সদস্যকে। তাদেরকে উচ্চ সতর্ক অবস্থায় রাখা হয়েছে। বলা হয়েছে, স্বল্প সময়ের নোটিশে মোতায়েন করা হতে পারে তাদেরকে। এমন তথ্য পেন্টাগনের। যুক্তরাষ্ট্র এরই মধ্যে ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে তাদের দূতাবাসের কর্মকর্তাদের পরিবার পরিজনকে ইউক্রেন ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছে।

রাশিয়ার আগ্রাসনের বিরুদ্ধে অভিন্ন কৌশল নির্ধারণের জন্য সোমবার ইউরোপিয়ান মিত্রদের সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। যে ৮৫০০ সেনাকে উচ্চ সতর্ক অবস্থায় রাখা হয়েছে, তাদেরকে মোতায়েনের এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানিয়েছে পেন্টাগন। সেখানকার প্রেস সেক্রেটারি জন কিরবি বলেছেন, ইউক্রেন সীমান্তে রাশিয়ান সেনাদের গতিবিধি দেখে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। যদি দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় ন্যাটো সামরিক জোট তাহলেই এসব সেনাকে মোতায়েন করা হবে। নিজে থেকে ইউক্রেনে এসব সেনা মোতায়েনের পরিকল্পনা নেই বলে জানিয়েছেন তিনি।

ইউরোপের পূর্বাঞ্চলে নিরাপত্তা জোরদার করতে এরই মধ্যে সেখানে যুদ্ধবিমান, যুদ্ধজাহাজ পাঠানোর পরিকল্পনা বা বিবেচনা করছে ন্যাটোভুক্ত কিছু দেশ। এর মধ্যে আছে ডেনমার্ক, স্পেন, ফ্রান্স ও নেদারল্যান্ডস। অন্যদিকে সপ্তাহান্তে যুক্তরাষ্ট্রের দেয়া প্রায় ৯০ টন ‘প্রাণঘাতি সহায়তা’ বা মারণাস্ত্র এসে পৌঁছেছে ইউক্রেনে। সম্মুখ সারির যোদ্ধাদের আত্মরক্ষায় ব্যবহৃত হবে তা।

এমন প্রেক্ষাপটে সোমবার বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন, ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রন, জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শুলজ, ইতালির প্রধানমন্ত্রী মারিও দ্রাঘি, পোল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট আঁন্দ্রেজ দুদা এবং ন্যাটো প্রধান জেন্স স্টোলটেনবার্গের সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলেছেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ফোন করা হয়েছিল ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের নেতা উরসুলা ভন ডার লিয়েন এবং চার্লস মিশেলকেও। পরে বাইডেন বলেছেন, এসব নেতার সঙ্গে আমি খুবই সুন্দর মিটিং করেছি। ইউরোপিয়ান সব নেতাই সর্বসম্মত মত দিয়েছেন।

0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published.

একই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2021 Chardike24.com
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট @ ইজি আইটি সল্যুশন