1. masudkhan89@yahoo.com : admin :
  2. masudkhan89@gmail.com : Masud Khan : Masud Khan
  3. news.chardike24@gmail.com : চারদিকে ২৪.কম : রাইসা আক্তার
মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ১১:৩৭ অপরাহ্ন

অনুপ্রবেশকারী স্থান পাওয়ার অভিযোগ ফেনীর দাগনভূঞা পৌর আ.লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি স্থগিত

  • আপডেট সময়: মঙ্গলবার, ২২ মার্চ, ২০২২
  • ১৯ দেখেছেন
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের পতাকা
জহিরুল হক মিলন : ফেনীর দাগনভূঞা পৌর আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণার একদিন পরেই তা স্থগিত করলো উপজেলা আওয়ামী লীগ। উপজেলা আওয়ামী লীগ সূত্রমতে, গত সাপ্তাহে ৭১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ পৌর আওয়ামী লীগ কমিটি অনুমোদন দেয়া হয়। কিন্তু চব্বিশ ঘন্টা অতিবাহিতের পূর্বেই তা স্থগিত করা হয়। এর কারন হিসেবে দায়িত্বশীল নেতারা আরও যাচাই-বাছাইয়ের কথা বললেও, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কমিটিতে অনুপ্রবেশকারী রয়েছে বলে নেতিবাচক সমালোচনা হয়েছে।
দলীয় সূত্রে জানা যায়, পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদনের জন্য দাগনভূঞা পৌর আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে গত সোমবার (১২ মার্চ) দলের উপজেলা সভাপতি ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মাস্টার কামাল উদ্দীন ও সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন মামুন উক্ত কমিটি পরের দিন মঙ্গলবার অনুমোদন দেন। পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে একাধিক সদস্য অনুপ্রবেশকারী রয়েছে বলে ফেইসবুকে সমালোচনা করে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের একাধিক নেতা। অভিযোগ উঠেছে কমিটিতে সদস্য পদ লাভ করা মোঃ হারুন প্রকাশ লোহা হারুন ছিলেন বিএনপির একসময়ের সক্রিয় সদস্য। অভিযোগ উঠেছে সাংগঠনিক সম্পাদক মাঈনউদ্দিনের বিরুদ্ধেও। তবে মাইন উদ্দিন পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতির দায়ত্বি পালন করছে গত পাঁচ বছর ধরে তিনি অনুপ্রবেশকারী নয় বলে জানান উপজেলা আওয়ামী লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক নুরুল হুদা সেলিম। মাঈন উদ্দিনের বিষয়ে একই মত দেন পৌর সম্পাদকের কাছে পূর্ণাঙ্গ কমিটির তালিকা প্রেরণ করা আওয়ামী লীগ
দাগনভূঞা পৌর আ.লীগে
সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক খান ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন মামুন।
এছাড়াও অভিযোগ রয়েছে ত্যাগীদের কমিটিতে স্থান না পাওয়া নিয়ে। যুবলীগ নেতা নুরুল আবসার জানান, আওয়ামী লীগের অনেক ত্যাগী নেতাকর্মী রয়েছেন যারা কমিটিতে স্থান পাননি। কিন্তু বিএনপি ও অন্য দল থেকে আসা লোকজন ঠিকই দলের স্থান ও পদ বাগিয়ে নিয়েছেন। বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল এক নেতা বলেন, পৌর পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে স্থান পাওয়া অনেকেই একসময় বিএনপির রাজনীতি করত। বাইরে ছিল। বর্তমানে আওয়ামী লীগ নেতাদের সাথে সখ্যতা গড়ে তুলে তারা পদ নিচ্ছে। অথচ মূর্দিনের ভ্যাগী নেতারা এসব অনুপ্রবেশকারীদের জন্য পদ-পদবীতে আসতে পারছেন না। তিনি বলেন, শুধু আওয়ামী লীগ নয়, ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কমিটিডিও অনুপ্রবেশকারীদের সংখ্যা বাড়ছে
একই প্রসঙ্গে পৌর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র ওমর ফারুক খান বলেন, হারুন, মাঈন উদ্দিন কেউই অনুপ্রবেশকারী । দশ বছর আগে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েছে। তার বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ক্ষতি করেছে এমন কোনো প্রমাণ নেই। ব্যক্তিগত পছন্দ অভিযুক্ত মোঃ হারুন জানান, তিনি কখনও বিএনপির পদ পদবীতে ছিলেন অপছন্দের জায়গা থেকে তার বিরুদ্ধে বলা হচ্ছে। অন্যদিকে মাঈন উদ্দিন না। দীর্ঘদিন ধরে পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের সাথে আওয়ামী দীর্ঘদিন সহযোগী সংগঠনের নেতৃত্ব দিয়ে আওয়ামী লীগে এসেছে। পৌর নির্বাচনে ৮ নম্বর ওয়ার্ডে নৌকার প্রার্থীর পক্ষে থাকায় বিদ্রোহী প্রার্থী এসব প্রপাগান্ডা ছড়াচ্ছে। কমিটি স্থগিত প্রসঙ্গে তিনি বলেন, মৌখিকভাবে স্থগিত করা হয়েছে। দাগনভূঞা পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী সাইফুর রহমান স্বপন দাবি করেন, আওয়ামী লীগে যোগদানকারী হারুন পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ড বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক। তার মত ২/১ জন নেতাকর্মী দল থেকে চলে গেলে বিএনপির মত বড় দলের তেমন কোন ক্ষতি হবে না। দাগনভূঞা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন মামুন বলেন, হারুন আওয়ামী লীগে যোগদান করেছে সেই হিসেবে ডাকে দলে সদস্য পদ দেওয়া হয়েছে। জেলা আওয়ামী লীগের নির্দেশে কমিটি সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়েছে। আরো যাচাই-বাছাই এবং প্রবীণদের স্থান করে দিতে এ স্থগিতাদেশ।
অনুপ্রবেশকারী প্রসঙ্গে পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি খায়েজ আহাম্মদ জানান, সদ্য স্থগিত হওয়া কমিটিতে সাংগঠনিক সম্পাদক পদ পাওয়া মাঈন উদ্দিন ও সদস্য হারুন দলে অনুপ্রবেশকারী। আমি দলীয় ফোরামে মাইন উদ্দিনকে দলে পদ দেওয়ার বিষয়টি নিয়ে বাধা দিয়েছি। তারপরেও তাকে পদ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া হারুনের সদস্যপদ পাওয়ার বিষয়টি আমার জানার বাহিরে রয়েছে।
0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published.

একই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2021 Chardike24.com
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট @ ইজি আইটি সল্যুশন