Friday, June 14, 2024

দেশের শপিংমল সমূহের নিরাপত্তা জোরদারের নির্দেশ

স্টাফ রিপোর্টার: রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে একের পর এক অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা নাশকতা কি না সেই তদন্তে মাঠে নেমেছে পুলিশ, র‍্যাবসহ সব গোয়েন্দা সংস্থা। এসব আগুনের ধরন, সময় প্রভৃতি বিশ্লেষণ করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে সব শ্রেণি-পেশার মানুষের কাছে প্রশ্ন উঠেছে যে, এসব অগ্নিকাণ্ড কি নিছক দুর্ঘটনা, নাকি কোনো নাশকতা? ঈদের আগেই কেন একাধিক মার্কেটে আগুন লাগছে, আগুন নেভানোর সময় ফায়ার সাার্ভিসকে কেন বাধা দেওয়া হচ্ছে ও অগ্নিনির্বাপণকর্মীদের ওপর কেন হামলা হচ্ছে? জনমনে এসব প্রশ্নের উদ্রেক হচ্ছে।

ঘনঘন অগ্নিকাণ্ড নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেও। তিনি এসব ঘটনায় ষড়যন্ত্র বা নাশকতা আছে কিনা, তা খতিয়ে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন। পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স থেকে সারা দেশের মার্কেটগুলোতে নিরাপত্তা বাড়ানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও মার্কেটগুলোর ব্যবসায়ী সমিতির নেতারা যৌথভাবে নিরাপত্তার বিষয়টি মনিটরিং করবে। মার্কেট করতে আসা ক্রেতা ও ব্যবসায়ীদের নিরাপত্তার জন্য এ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

চলতি বছরের ৬ মার্চ রাজধানীর সায়েন্সল্যাবে শিরীন ম্যানশনে বিস্ফোরণের পর আগুনে দগ্ধ হয়ে মারা যান ৬ জন। তার পরই ৭ মার্চ সিদ্দিকবাজারে একই ধরনের বিস্ফোরণের আগুনে দগ্ধ হয়ে ২৬ জনের মৃত্যু হয়। এর পর এলিফ্যান্ট রোডে একটি কম্পিউটার মার্কেটে আগুন লাগে। গত ৪ এপ্রিল ভোরে রাজধানীর বঙ্গবাজার মার্কেটে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এতে কেউ মারা না গেলেও অগ্নিকাণ্ডের ব্যাপকতা দেশবাসীকে নাড়া দিয়েছে। বিশেষ করে ঈদের আগমুহূর্তে পোশাক ব্যবসায়ীদের এই অপূরণীয় ক্ষতি সবার মনে দাগ কেটেছে। ১১ এপ্রিল চকবাজারের সিরামিক গুদামে আগুন লাগে। গত বৃহস্পতিবার পুরান ঢাকার নবাবপুর রোডে আগুনে পুড়ে যায় ২০টির মতো টিনশেডের গুদাম। সর্বশেষ গতকাল আগুন লাগল ঢাকার নিউ সুপার মার্কেটে। শনিবার ভোর ৫টা ৪০ মিনিটে আগুন লাগে ঐ মার্কেটে। ঈদের আগমুহূর্তে পোশাক ব্যবসায়ীদের এই অপূরণীয় ক্ষতি সবাইকে ব্যথিত করেছে। এছাড়াও সম্প্রতি বেশ কয়েকটি বিস্ফোরণ এবং অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ভাবিয়ে তুলছে সব মহলকে।

পুলিশের আইজি চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বলেন, রাজধানীতে ঘটে যাওয়া প্রতিটি অগ্নিকাণ্ডের কারণ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। নাশকতার প্রমাণ পাওয়া গেলে জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়া রাজধানীসহ সারা দেশে মার্কেট ও শপিংমলের নিরাপত্তা প্রদানের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রতিটি মার্কেটে পুলিশ ও ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দ যৌথভাবে নিরাপত্তার বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করবে।

র‍্যাবের মহাপরিচালক এম খুরশীদ হোসেন বলেন, একই সময়ে একই কায়দায় রাজধানীতে পর পর কয়েকটি আগুন লাগার বিষয়টি রহস্যজনক। এসব অগ্নিকাণ্ড নাশকতা কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ব্যবসায়ীরাও একই সময়ে আগুন লাগার ঘটনাকে সন্দেহজনক মনে করছেন। এ কারণে বিষয়টি গভীরভাবে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

ঈদের আগে পুরান ঢাকার বঙ্গবাজার ও নবাবপুরে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের পর নিউ সুপার মার্কেটে আগুন লাগার ঘটনাটি নাশকতা কি না—সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ফায়ার সার্ভিসের মহাপরিচালক (ডিজি) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মইন উদ্দিন বলেছেন, ‘একের পর এক কেন আগুন লাগছে? বিষয়টি সন্দেহজনক মনে হচ্ছে।’ অগ্নিকাণ্ডের এই ঘটনাগুলো তদন্ত করে দেখতে সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

- Advertisement -spot_img

আরো পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -spot_img

সর্বশেষ খবর